• ঢাকা
  • মঙ্গলবার , ২৭ ফেব্রুয়ারী , ২০২৪
Logo

বিনা মূল্যে বই বিতরণে বাংলাদেশ অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে: শিক্ষামন্ত্রী

Admin প্রকাশিত: মঙ্গলবার , ৩ জানুয়ারী , ২০২৩

শেয়ার করুনঃ
বিনা মূল্যে বই বিতরণে বাংলাদেশ অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, সারা দেশে আজ বই উৎসব হয়েছে। সারা পৃথিবীতে বাংলাদেশ অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে, যেখানে বছরের প্রথম দিন বই উৎসব হয় এবং কোটি কোটি শিক্ষার্থী এ বই উৎসবে অংশগ্রহণ করে।

এ বছর মাধ্যমিকের পাঠ্যপুস্তক উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার কাপাসিয়া সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ে। এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী। আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় বেলুন উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন করেন দীপু মনি। পরে দুপুর সাড়ে ১২টায় বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীর হাতে বিনা মূল্যের নতুন বই তুলে দেন তিনি। অনুষ্ঠানে নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এমন একটি শিক্ষাক্রম গঠন করেছি, যেখানে শিক্ষা হবে আনন্দময়। পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষার্থীরা ভীত থাকবে না। পরীক্ষা থাকবে। তবে ধারাবাহিক মূল্যায়নের মধ্য দিয়ে অনুশীলন হবে। প্রতিদিন শিক্ষার্থীরা তা করে শিখবে। কোনো মুখস্থবিদ্যার বালাই থাকবে না। সক্রিয় শিখন হবে। অভিজ্ঞতাভিত্তিক শিখন হবে। যা শিখবে তা আবার প্রয়োগ করতে শিখবে। কেমন করে শিখতে হয়, তা–ও শিখে ফেলবে।’

বই বিতরণ নিয়ে একটি পরিসংখ্যান তুলে ধরেন দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘২০১০ সাল থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত সরকার শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৪৩৪ কোটি ৪৫ লাখ ৮০ হাজার ২১১টি বই বিনা মূল্যে বিতরণ করেছে। এটি পৃথিবীর যেকোনো জায়গার জন্য অচিন্তনীয় বিষয়। কিন্তু কাজটি বঙ্গবন্ধু–কন্যার নির্দেশনায় আমরা প্রতিবছর করে যাচ্ছি।’

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরি করে দিয়েছেন। বাংলাদেশের সরকার হবে স্মার্ট সরকার, অর্থনীতি হবে স্মার্ট অর্থনীতি, সমাজ হবে স্মার্ট সমাজ, এসব গড়ার জন্য দরকার স্মার্ট শিক্ষা। নতুন শিক্ষাক্রম তৈরির মাধ্যমে আমরা সেই শিক্ষার দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।’ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আবু বকর ছিদ্দীকের সভাপতিত্বে পাঠ্যপুস্তক উৎসবে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, স্থানীয় সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. কামাল হোসেন, গাজীপুর জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান, গাজীপুর জেলা পুলিশ সুপার কাজী শফিকুল আলম প্রমুখ। উৎসবে শিক্ষা উপমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের বই ছাড়াও জীবন থেকে, মা–বাবার কাছ থেকে শেখার পরামর্শ দেন। কবিতা ও গল্পের বই পড়তে বলেন।

সারা দেশে এ বছর সব মিলিয়ে প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থী পাচ্ছে নতুন বই। উৎসবে নিজের অভিজ্ঞতা জানিয়ে মঞ্চে বক্তব্য দেয় কাপাসিয়া পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী মোছা. ইলমা। সে বলে, ‘বছরের প্রথম দিন হাতে বই পাওয়ার আনন্দ সবাইকে আন্দোলিত করছে। আমরা শিক্ষার্থীরা সবাই আনন্দিত।’ মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে গত দুই বছর দেশে বই উৎসব হয়নি। ঢাকার বাইরে গাজীপুরে এবারই প্রথম এমন জাতীয় পাঠ্যপুস্তক উৎসব আয়োজনে সাড়া পড়েছে কাপাসিয়া তথা আশপাশের উপজেলাগুলোতে। আজ সকালে অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার আগে স্কুলের মাঠ শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে পূর্ণ হয়ে যায়। সংশ্লিষ্ট স্কুলের শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে বিভিন্ন স্কুল থেকে দল বেঁধে শিক্ষার্থীরা এসে জড়ো হয়। উৎসবে বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার মানুষ উপস্থিত হন।

Admin
শেয়ার করুনঃ

এই বিভাগের আরোও খবর

Logo